যৌতুকের দাবীতে গৃহবধৃকে নির্যাতন ব্রাহ্মণপাড়ায় সন্তানদের নিয়ে বাড়ী ফিরতে পারছেনা মা

সিটিভি নিউজ।।      আনোয়ারুল ইসলাম   সংবাদতদাতা জানান ==== কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার ষাইটশলা গ্রামে যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানষিক নির্যাতনের অভিযোগে থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন এক নির্যাতিত গৃহবধু। স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় নির্যাতনের অভিযোগ দিয়ে ছেলে সন্তাদের নিয়ে বাড়ী ফিরতে পারছেন না বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি থাকা ঐ গৃহবধু সেলিনা আক্তার।
এব্যাপারে আহত গৃহবধু আরো জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর বুধবার বিকালে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের ষাইটশলা গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে ও তার স্বামী জামসেদুর রহমান এবং তার শ্বশুড়ী হাজেরা খাতুন ও জামসেদুর রহমানের ভাগিনা একই ইউনিয়নের বলাকিয়া গ্রামের শিশু মিয়ার ছেলে মোঃ হাকিম মিলে গৃহবধু সেলিনা আক্তারকে যৌতুকের দাবীতে মারধর করে গুরত্বর আহত করে। খবর পেয়ে স্বজন ও প্রতিবেশীরা আহত সেলিনা আক্তার (৪০) কে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।
এছাড়াও তিনি বলেন, দীর্ঘদিন যাবত তার স্বামী তাকে যৌতুকের টাকার জন্য শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছে। একই ভাবে গত বুধবার বিকেলে তাকে তার স্বামী ও শ্বশুড়ীসহ ভাগিনা মিলে মারধর করে। পরে গত ৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার তিনি নিজেই বাদী হয়ে স্বামী ও শ্বশুড়ীসহ ৩ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন। থানায় অভিযোগের পর সেলিনার সন্তানরা তাদের পিত্রালয়ে গেলে তাদের বাবা তাদেরকে মারধর করে এবং তাদেরকে হুমকি ধমকি প্রদান করে বাড়ী থেকে তারিয়ে দেয়।
এ ব্যাপারে উক্ত অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আব্দুল কুদ্দুস জানান, আহত গৃহবধু দীর্ঘ একসপ্তাহ যাবত ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এই বিষয়ে আমরা তদন্ত সাপেক্ষে অভিযোক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবসাস্থা গ্রহন করবো।

সংবাদ প্রকাশঃ ০৯২০১৯ইং (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like সিটিভি নিউজ@,CTV NEWS24   এখানে ক্লিক করে সিটিভি নিউজের সকল সংবাদ পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন   CTVNEWS24  See More সিটিভি নিউজ।। =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন==

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •