❝শেখ হাসিনার মিশন ও ভিশন নিয়ে কাজ করতে চাই❞ – আলী আকবর

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ।।     এইচ এম মহি উদ্দিন, কুমিল্লা ব্যুরো প্রতিনিধি:===আগামী ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেলা পরিষদ নির্বাচন । নির্বাচনে অংশ নিতে বিভিন্ন দলের মনোনয়নপ্রত্যাশীরা দৌড়ঝাঁপ দিচ্ছেন দলনেতাদের কাছে। বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নিবে কি না এখনো সন্দিহান। তবে গতকাল (৪ সেপ্টেম্বর) থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দলীয় ফরম বিক্রি শুরু হয়েছে ধানমন্ডি ৩/এ দলীয় কার্যালয় থেকে । এতে সারাদেশ থেকে বিভিন্ন নেতাকর্মীরা দলীয় ফরম নিতে আসেন দলীয় কার্যালয়ে। কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে ফরম নিয়েছেন ২ জন। এরা হলেন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলী আকবর ও বাংলাদেশ হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের সাবেক ট্রাস্টি শ্রী শ্যামল চন্দ্র ভট্টা‌চারজ্য। এতে আলী আকবর মনোনয়পত্র ক্রয় শেষে বিস্তারিত পুরন করে ফরম জমা দিয়ে দেন।

দলীয় মনোনয়ন নিয়ে পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নে কুমিল্লা জেলা (দঃ) আওয়ামীলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ  আলী আকবর জানান, শেখ হাসিনার মিশন  ও ভিশন বাস্তবায়নে কুমিল্লার উন্নয়নে কাজ করতে চাইশিক্ষা সংস্কৃতি প্রাচীন সভ্যতার নগরী কুমিল্লা, ঢাকা চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী এবং দেশের প্রাচীনতম বৃহৎ একটি জেলা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মিশন ভিশন বাস্তবায়নে তৃণমূলের সকলকের সাথে সমন্বয় করে কুমিল্লাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।

তিনি আরো বলেন, গত ৩৫ বছর ধরে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ, তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে সম্পৃক্ত থেকে দেশ দল মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি। স্বচ্ছতার সাথে সংগঠন, রাজনৈতিক, সামাজিক মানবিক কর্মকাণ্ড বিবেচনায় কুমিল্লা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মাননীয় নেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনয়ন দেবেন ইনশাআল্লাহ। নির্বাচত হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করার পাশাপাশি তার মিশন ভিশন বাস্তবায়নে গ্রামকে শহর একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের মাধ্যমে বেকারত্ব সমস্যার সমাধানে প্রধান্য দিয়ে কাজ করতে চাই। নেত্রীর সীদ্ধান্তই চুড়ান্ত, দল যদি আমার চাইতে যোগ্য কাউকে মনোনীত করে অবশ্যই তার পক্ষে কাজ করবো। ভোটার কুমিল্লাবাসী তথা সকলের দোয়া সমর্থন চাই

মনোনয়ন জমাদানে উপস্থিত কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ করিম মজুমদার। কুমিল্লা জেলা (দঃ) মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোসাম্মৎ কোহিনুর বেগম, দক্ষিণ জেলা যুবলীগ নেতা পলাশ, কুমিল্লা দক্ষিণ যুবলীগ নেতা মানসু, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটি উজ্জল হোসেন তুহিন, সুফিয়ান, মাসুম বিল্লাহ, জি এম হেলাল শাওন, রাহাত সহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

জাতীয় নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী- মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১৫ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাই ১৮ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল দায়েরের সময় ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর, আপিল নিষ্পত্তি ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ২৬ সেপ্টেম্বর। আর ভোটগ্রহণ হবে ১৭ অক্টোবর।

উল্লেখ্য ২০০০ সালে তৎকালীন সরকার নতুন করে জেলা পরিষদ আইন প্রণয়ন করে। এরপর জোট সরকারের আমলে এনিয়ে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। পরে ২০০৯ সালে আওয়ামীলীগ সরকার পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর ২০১১ সালে প্রশাসক নিয়োগ দিয়ে জেলা পরিষদ পরিচালনা করে। এরপর প্রথমবারের মতো স্থানীয় এই সরকারে নির্বাচন হয় ২০১৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর। সেসময় ৬১টি জেলায় (তিন পার্বত্য জেলা বাদে) নির্বাচন হয়েছিল। এর মধ্যে ১৯টি জেলায় চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

জেলা পরিষদের মেয়াদ আরও আগেই শেষ হলেও আইন সংশোধনসহ অন্যান্য জটিলতার কারণে ভোট নিতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। স্থানীয় এই সরকারের আইনটি সংশোধনের পর ১৭ এপ্রিল স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ তানভীর আজম ছিদ্দিকী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রশাসক বসানো কথা বলা হয়।  সংবাদ প্রকাশঃ  ০৪-০-২০২২ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email