মনোহরগঞ্জের কান্দি গ্রামে নিঃস্ব পরিবারকে একাধিক মামলা দিয়ে হয়রানী প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ।।  মোঃ হুমায়ুন কবির মানিক  মোঃ হুমায়ুন কবির মানিক, কুমিল্লা।।===========
পরপর একাধিক মামলা দিয়ে একটি নিঃস্ব পরিবারকে দীর্ঘদিন ধরে হয়রানির প্রতিবাদে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার নাথেরপেটুয়ায় মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। জমি-জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে দিনমজুর আমির হোসেন ও মীর হোসেনসহ পরিবারটির বিরুদ্ধে একই এলাকার আবদুল খালেক গং কর্তৃক দীর্ঘদিন ধরে একের পর এক মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে কান্দি গ্রামে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
দিনমজুর আমির হোসেন ওরফে আবদুল মান্নান ও মীর হোসেন জানান, সে.মে. ১৫২/১৫৩/১৫৬/১৫৭নং খতিয়ানের ৫৩১ দাগে পূর্বপুরুষদের আমল থেকে বংশানুক্রমে আমরা চাচা-জেঠাসহ অন্যান্যরা হারাহারিভাবে বশতবাড়িসহ জমিজমা ভোগ  দখল করে আসছি। কিন্তু আমাদের ওয়ারিশ না হলেও দূরসম্পর্কের আত্মীয় আবদুল খালেক ও তার ভাই এবং সন্তানরা মিলে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের নামে বিভিন্ন মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছেন। আমরা দিনমজুর বিধায় মামলা পরিচালনা করতে অপরাগ। ইতিমধ্যে আদালতের রায় আমাদের পক্ষে আসলে আবারো সচতুর আবদুল খালেক গংরা বার বার আপিলসহ মামলা দিয়ে যাচ্ছে। এতে আমরা পথে বসার উপক্রম হয়েছে। আমরা প্রশাসনের নিকট এর সুষ্ঠু প্রতিকার চাই।
ঐ এলাকার বয়োঃবৃদ্ধ বজলুর রহমান মুন্সি বলেন, আমরা দীর্ঘদিন থেকে দেখে আসছি লাল মিয়ার ওয়ারিশ আবদুল মান্নান, মীর হোসেনসহ অন্যান্যরা খালের পাড়ের জায়গা ভোগ দখল করে আসছে। এ জমি কব্জায় নিতে আবদুল খালেকসহ তার অনুসারীরা নানাভাবে মামলা দেয়ায় দিনমজুর-নিঃস্ব এ পরিবারটি পথে বসার অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। আদালতের দেয়া রায়েও তারা সন্তুষ্ট না। রায়ের আলোকে আমরা এলাকাবাসী স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে বিলি বন্টনের উদ্যোগে নিলেও আবদুল খালেক গংরা তা অগ্রাহ্য করে হাইকোর্টে মামলা করেছেন। এছাড়াও গত মাসে জোর-জবরদস্তি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের মিথ্যা অভিযোগ এনে কুমিল্লা আদালতে মীর হোসেন, রুহুল আমিনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। আশ্চর্যের বিষয় হলো এ মামলায় যাদেরকে স্বাক্ষী করা হয়েছে তাদের বেশিরভাগই দেশের বাইরে অবস্থান করছে। একজন আসামিও দেশের বাইরে।
কান্দি গ্রামের মহসিন কবির বলেন, আমির হোসেন, মীর হোসেন ও আলী হোসেনের কাছ থেকে লীজ নিয়ে আমি খালের পাড়ের বেড়িতে গত ৮/৯ বছর মাছ চাষ করে আসছি। এ জমি দখলে নিতে আমির হোসেনের পরিবারকে অহেতুক হয়রানির উদ্দেশ্যে একের পর এক  মামলা দিয়ে আবদুল খালেক গংরা জেরবার করছে।
মানববন্ধনে একই এলাকার হাজী মকবুল আহমদ (৮০), আবদুর রব (৬৭), নুরুজ্জামান (৬৫), সাবেক ইউপি সদস্য বেলায়েত হোসেন, মহিন উদ্দিন (৭০), দ্বীন মোহাম্মদ (৭৫), মহসীন মিয়া (৬০), ছালেহ আহমদ (৭০) সহ শতশত লোক অংশগ্রহণ করেন। তারা বলেন, দীর্ঘদিন পৈত্রিক সম্পত্তি ভোগদখল করে আসলেও দিনমজুর আমির হোসেন, মীর হোসেনের পরিবারকে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে আবদুল খালেক গংরা। আমরা এলাকার শান্তি-শৃংখলার স্বার্থে এ অনৈতিক কাজ বন্ধের দাবি জানাই।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত আবদুল খালেক জানান, বিরোধপূর্ণ জমির বিষয়ে দায়ের করা মামলায় কুমিল্লা অতিরিক্ত জেলা জজ আদালত যে রায় দিয়েছেন তার বিরুদ্ধে আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করেছি।  সংবাদ প্রকাশঃ  ০৪-১০-২০২২ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email