প্রতারিত হচ্ছে কৃষক  ব্রাহ্মণপাড়ায় সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে সার বিক্রির অভিযোগ

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন
সিটিভি নিউজ।।    মোঃ অপু খান চৌধুরী।। সংবাদদাতা জানান ======
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অতিরিক্ত মূল্যে সার বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার শশীদল  ইউনিয়নের  দেউস বাজারের সব ডিলার মেসার্স চাষী ট্রেডার্সের মালিক  বজলুর রহমান ধানু মিয়ার বিরোদ্ধে এ অভিযোগ উঠে।  সরকারি নির্দেশনার তোয়াক্কা না করে অতিরিক্ত দামে সার বিক্রি করছেন বলে দাবি স্থানীয় শতশত কৃষকদের। এতে ক্ষতির মুখে পড়েছেন কৃষকেরা।সরকার সারের দাম কমালেও কৃষকের কোনো উপকার হচ্ছে না।
সরেজমিনে উপজেলার শশীদল ইউনিয়নের দেউস বাজার ঘুরে দেখা যায়, ১১০০ টাকা (বস্তা) মূল্যের ইউরিয়া এবং ট্রিপল সুপার ফসফেট বা টিএসপি সার বিক্রি হচ্ছে ১২০০-১৩০০টাকা, ডাই অ্যামোনিয়া ফসফেট (ডিএপি) ৮০০ টাকা (বস্তা) বিক্রি হচ্ছে ৯০০-১০০০ টাকায় এবং মিউরেট অব পটাশ ( এমওপি) ৭৫০ টাকা(বস্তা) ৮৫০- ৯৫০ টাকা। এতে কৃষককে বস্তা প্রতি অতিরিক্ত গুনতে হচ্ছে ১০০-২০০ টাকা।
ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাজঘর  গ্রামের কনু মিয়ার ছেলে কৃষক সাহজাহান বলেন, মেসার্স চাষী ট্রেডার্স
 তাদের দোকানে লোক দেখানোর জন্য মূল্য তালিকা টাঙিয়ে রেখেছেন। কিন্তু সেই দামে সার বিক্রি করছেন না। তারা প্রতি কেজি ইউরিয়া ও টিএসপি ২৪ থেকে ২৬ টাকা, এমওপি ১৭ থেকে ১৯ এবং ডিএপি ১৮ থেকে ২০ টাকায় বিক্রি করছেন। প্রতিবাদ করেও কোনো লাভ হচ্ছে না।
দেউস উত্তর পাড়া গ্রামের কৃষক জামাল হোসেন ও হোসেন মিয়া বলেন, আমরা  বজলুর রহমান ধানুর কাজ   থেকে সার ক্রয় করতে গেলে বেশি দাম রাখার পাশাপাশি ওজনেও কম দেয়। প্রতিবাদ করলে আমাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে।
 এছাড়া দেউস গ্রামের কৃষক ইমরান হোসেন বলেন, আমি এখন পটাশ সার নিতে আসছি সাংবাদিক দেখে বেশি দাম রাখতে পারবে না বিধায় আমাকে বলছে পটাশ সার নেই। আপনারা একটু এদিকে ( দোকানের মধ্যে) এসে দেখে যান দোকানে অনেক পটাশ সারের বস্তা। এ ব্যাপারে মেসার্স চাষি ট্রেডার্স এর প্রোপাইটার বজলুর রহমান ধানু মিয়াকে এই প্রতিবেদক প্রশ্ন করলে তিনি দাম বেশি রাখার কথা স্বীকার করেন। তিনি বলেন আমাদের এই বাজারে সার আনতে পরিবহন খরচ অনেক বেশি লাগে এবং সারের বস্তার মধ্যেও সঠিক মাপে সার পাই না তাই আমি  নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে  বেশি দামে সার বিক্রি করতে হচ্ছে।
 এছাড়া এই বাজারে অন্য সার দোকানদারের বিরুদ্ধে অবৈধ সার বিক্রির অভিযোগ রয়েছে।
 এব্যপারে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার কৃষি অফিসার মাহবুবুল হাসান  বলেন, সরকারের নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কেউ বেশি দামে সার বিক্রি করে থাকলে এটা অপরাধ। যদি কেউ নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে সার বিক্রি করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।সংবাদ প্রকাশঃ ২১০১২০২৩ ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন

Print Friendly, PDF & Email