নারায়ণগঞ্জে রেলওয়ের ৬০ কোটি টাকার ভূমি আত্মসাতের প্রতিবাদে নাগরিক কমিটির মানববন্ধন

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ, এম আর কামাল, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান : নারায়ণগঞ্জে রেলওয়ের ভূমি আত্মসাতের প্রতিবাদে মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে নগরের ১নং রেল গেটের সামনে মানববন্ধন করেছে নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটি। সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভাপতি এড. এবি সিদ্দিকের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব রফিউর রাব্বি, সহ সভাপতি সানোয়ার তালুকদার, বাসদ জেলা আহবায়ক নিখিল দাস, নাগরিক কমিটির সদস্য হাফিজুল ইসলাম, মরিয়ম কল্পনা, মুজিবুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা নূর হোসেন মোল্লা, শ্রমিক নেতা তাজুল ইসলাম, উক্ত এলাকার মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক শান্তিরঞ্জন দে প্রমূখ।
রফিউর রাব্বি বলেন, রেলওয়ের কিছু অসাধু কর্মকর্তা দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জের কতিপয় ভূমিদস্যদের সাথে আঁতাত করে রেলওয়ের ভূমি আত্মসাতের প্রক্রিয়া চালিয়ে আসছে। ১নং রেলগেটের সাথে ৪৭ হাজার দুইশ বর্গফুট প্রায় ৬০ কোটি টাকা মূল্যর ভূমিটি দশবছর আগে রেলওয়ে কল্যাণ ট্রাস্ট সংগঠনের নামে বরাদ্দ নিয়ে মার্কেট তৈরী করে আত্মসাতের উদ্যোগ নিয়েছিল। তখন এর বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জে নাগরিক আন্দোলন শুরু হলে, সে আন্দোলন দমাতে টিআরসেল, গুলি সহ বিভিন্ন ঘটনা এখানে ঘটেছে। আন্দোলন দমাতে ব্যর্থ হয়ে এক সময় রেল কর্তৃপক্ষ মার্কেট নির্মাণের প্রকল্প বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিল। কিন্তু আজকে আবার রেল কর্তৃপক্ষ তথাকথিত সেই কল্যাণ ট্রাস্টের নামে মার্কেট তৈরী করে সে জায়গা আত্মসাতের উদ্যোগ নিয়েছে।
তিনি বলেন, রাজউক দেশের বিভিন্ন জায়গায় জরিপ করে টেকসই উন্নয়নের জন্য নদীবন্দর সংলগ্ন ২১টি জেলায় নৌ-বন্দর, রেল-স্টেশন ও বাস-টার্মিনাল একই জায়গায় তৈরীর জন্য ডিটেল এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) প্রনয়ণ করেছে। সে পরিকল্পনায় নারায়ণগঞ্জের এই নৌ-বন্দর, রেল-স্টেশনটি ও বাস-টার্মিনালটি রয়েছে। ড্যাপের এ পরিকল্পনা সরকারের স্টেটিজিক ট্যান্সপোর্ট প্ল্যান (এসটিপি) দ্বারাও অনুমোদিত। অথচ সরকারেরই একটি সংস্থা রেলওয়ে-তাদের কিছু অসাধু কর্মকর্তা স্থানীয় ভূমিদস্যুদের সাথে নিয়ে এই জমিতে মার্কেট তৈরী করে আত্মসাতের পায়তারা করছে। তিনি দ্রুত এ তৎপরতা বন্ধ করে এর সাথে জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। তিনি বলেন, দ্রুত এ তৎপরতা বন্ধ না হলে উদ্ভুত পরিস্থিতির জন্য সরকারকেই দায়ি থাকতে হবে।
এবি সিদ্দিক বলেন, নিয়ম অনুযায়ি অধিগ্রহণকৃত ভূমি সে প্রয়োজনে তা ব্যবহার না হলে তা যার কাছ থেকে অধিগ্রহণ করা হয়েছে তাকে অথবা স্থানীয় পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশনের কাছে স্থানীয় প্রয়োজনে ব্যবহারের জন্য ফেরত দিবে; কিন্তু কোন ভাবেই তা বিক্রয় করা যাবে না। আমরা বরাবর বলে এসেছি নারায়ণগঞ্জে অবস্থিত রেলওয়ে সহ সকল সরকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর ভূমি নারায়ণগঞ্জের মানুষেরই ভূমি। এ সব নারায়ণগঞ্জের মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় অধিগ্রহণ করা হয়েছে। জায়গার অভাবে যখন এখানে উন্নত বিশ্ববিদ্যালয, মেডিকের কলেজ সহ অনেক কিছুই করা যাচ্ছে না তখন টেণ্ডার করে অথবা গোপনে এভাবে ভূমি বিক্রয়, আত্মসাৎ বা লুটপাট চলতে পারে না, চলতে দেয়া যাবে না।  সংবাদ প্রকাশঃ  ২-০-২০২২ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email