কুমিল্লার দেবিদ্বারে শ্মশানের জমি ফেরত পেতে ন্যায় বিচার প্রত্যাশী কল্পনা রানী সূত্রধর

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ।।     দেবিদ্বার প্রতিনিধি সংবাদদাতা জানান ====     : কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার থানার মোহনপুর ইউনিয়নের কুরুইন গ্রামে শত বছরের পুরানো শ্মশানের জায়গা অবৈধ দখল এবং নিজের নামে রেকর্ড করে অন্যত্র বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
কুরুইন গ্রামের মৃত আবদুর রহমানের পুত্র স্থানীয় মাটি ব্যবসায়ী জনৈক আবদুল মোমেনের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে।
শ্মশানের জমিটি ফিরে পেতে কল্পনা রানী সুত্রধর নামের এক বৃদ্ধা আদালতের দারস্থ হয়েছেন। যা মোকাম কুমিল্লার দেবিদ্বার থানা সহকারী জজ আদালত, দেওয়ানী মামলা নং-১৪৩/২০১৯ইং।বেশ কিছু দিন আগে ওই স্থানে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য দেবিদ্বার থানায়ও হিন্দু পরিবারের পক্ষ থেকে শ্মশানঘাট রক্ষায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছিল। দেবিদ্বার থানা পুলিশ এই সম্পতিতে শান্তি শৃংখলা রক্ষায় ব্যবস্থাও নিয়েছেন।
লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, মোহনপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের কুরুইন মৌজায় ১০৮ নম্বর খতিয়ানের ১৯৯ নম্বর দাগের ১১ শতক সম্পত্তি যা শ্মশান ছিল। মোমেন তা নিজের নামে বিএস রেকর্ড করে নিয়েছে এবং মৃত রোশমত আলীর পুত্র আবদুর রহিম নামের এক জনের কাছে কিছু জমি বিক্রিও করে দিয়েছে। বর্তমানে ওই স্থানে শ্মশানের কোন অস্থিত্ব নাই। শ্মশানের স্থানটি ব্যবহার করার পয়তারা চলছে। স্থানীয় গন্যমান্যরা আবদুর রহিমকে জমিটি ক্রয় করতে নিষেধ করা সত্বেও আবদুর রহিম শ্মশানের জমিটি ক্রয় করেছে। এতে করে এলাকাবাসি ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।
কল্পনা রানী সুত্রধর বলেন, আমার বাবা-মা, ভাই-বোন কেউ নেই,স্বামীর বাড়িতে থাকি এই সোযোগে আমাদের শ্মশানের জমিটি মোমেন রেকর্ড করে নিয়েছে। রেকর্ড বাতিলের জন্য আমি আদালতে মামলা করেছি। আমি যেন ন্যায়বিচার পাই কর্তৃপক্ষের কাছে আমার একটাই আবেদন।
তদন্তকারী অফিসার বলেন বিষয়টি নিয়ে আদালতে মামলা চলছে,একটা পক্ষ জমিটি ব্যবহারের চেষ্টা করছিল। শান্তি শৃংখলা রক্ষায় মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কেউ যেন ওই স্থানে কাজ না করে বলে আসা হয়েছে।

সংবাদ প্রকাশঃ  ১৩-০-২০২২ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে/লিংকে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email