এমপি-চেয়ারম্যান হাতা হাতি- মারামারি জেলা-উপজেলার নেতাদের কেন্দ্রে ডাক, সবার দৃষ্টি এখন ঢাকার বৈঠকে

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

কুমিল্লা- ৪ দেবীদ্বার নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং কুমিল্লা (উঃ) জেলা আ’লীগের সংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ’র ছবি।

সিটিভি নিউজ ।।       এবিএম আতিকুর রহমান বাশার ঃ  সংবাদদাতা জানান ====
দেবীদ্বার উপজেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটিসহ কুমিল্লা (উঃ) জেলা ও দেবীদ্বার উপজেলার নেতৃবৃন্দের ডাক পড়েছে ঢাকায়।
দলীয় সূত্রে জানা যায়, আজ রোববার (২৪ জুলাই) বিকেল ৩টায় কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে কুমিল্লা- ৪ দেবীদ্বার নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং কুমিল্লা (উঃ) জেলা আ’লীগের সংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ’র মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ নিষ্পত্তি এবং সম্মেলনের তারিখ পুননির্ধারণ বা আহবায়ক কমিটি গঠন করার বিষয়ে আলোচনার জন্য। বৈঠকটি আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
উল্লেখ্য ২৬ বছর পর গত ২১ জুলাই দেবীদ্বার উপজেলা আ’লীগ সম্মেলন অনুষ্ঠানের চুড়ান্ত তারিখ নির্ধারণ ছিল। ওই সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ১৬ জুলাই জাতীয় সংসদ ভবনের দ্বিতীয় তলায় পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাবে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে জেলার সভাপতি ম. রুহুল আমিনসহ জেলা এবং উপজেলার প্রায় ২৬ নেতা উপস্থিত ছিলেন। সভার এক পর্যায়ে উপজেল আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন সরকার দাবী তুলেন, উপজেলার এলাহাবাদ ইউনিয়ন কমিটি ঘোষণা দেয়ার। এসময় উপস্থিত সকল সদস্য এক বাক্যে তা সমর্থন করলে কুমিল্লা (উঃ) জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাজী রোশন আলী মাষ্টার সাবেক এলাহাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম সরকারকে সভাপতি হিসাবে এবং আক্তারুজ্জামান স্বপনের নাম সাধারন সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করেন। ওই সময় কুমিল্লা-৪ (দেবীদ্বার) র্বিাচনী এলাকার সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল কমিটি মানিনা বলে ঘোষণা দেয়। পাশে বসা দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ কুমিল্লা(উঃ) জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ কমিটি সুন্দর হয়েছে বলে ওই কমিটিকে অভিনন্দন জানালে এমপি রাজী মোহাম্মদ ফখরুল আকষ্মিক উপজেলা চেয়ারম্যানকে কিল-ঘূষি, চর-থাপ্পর মারতে মারতে মেঝেতে ফেলে দেন। পরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও এমপিকে কিল-ঘুষি মেরে লাঞ্ছিত করেন। তাদের দু’জনের মধ্যে হাতা হাতির সময় কুমিল্লা (উঃ) জেলা আ’লীগের সভাপতি ম. রুহুল আমিন নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেন। ঘটনার পর আহত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আ’লীগ কুমিল্লা (উঃ) জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ১৬ জুলাই সন্ধ্যায় উপজেলা চেয়ারম্যান সমর্থকরা ‘ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক ও দেবীদ্বার-চান্দিনা সড়ক অবরোধ’ করে রাখে। ওই দিন রাত পৌনে ৮টায় চেয়ারম্যান সমর্থকরা দেবীদ্বার সদরে মিছিল বাহির করলে, এমপি গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এতে উভয় গ্রুপের প্রায় ৮/১০ জন কর্মী-সমর্থক আহত হয়। এ সময় মুহুর্মূহু ককটেল বিস্ফোরনের ফলে পুরো দেবীদ্বারে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।
অপরদিকে গত ২০ জুলাই সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এমপির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও ঝাড়ুমিছিল এবং সমাবেশ করে চেয়ারম্যান সমর্থকরা। ওই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে যোগদান করতে আসা নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের গাড়িবহরে বাগুর এলাকায় হামলা করে এমপির সমর্থকরা। হামলায় নেতৃত্ব দেন কুমিল্লা উত্তর জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক লিটন সরকার ও তার ভাগিনা সৈকত। এতে চেয়ারম্যান গ্রুপের অন্তত: ১৫ জন আহত হয়, মারাত্মক আহত ৫ জনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এর আগে গত ১৭ জুলাই চট্রগ্রাম বিভাগীয় দায়ীত্বপ্রাপ্ত আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপির সাথে সৃষ্ট পরিস্থিতি নিয়ে কুমিল্লা উত্তর জেলা সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক সহ নেতৃবৃন্দের সাথে জরুরী বৈঠক করেন। বৈঠকে অপ্রীতিকর ঘটনা এরাতে ২১ জুলাই উপজেলা আ’লীগের সম্মেলন স্থগিত করেন এবং ওই দিন অর্থাৎ ২১ জুলাই জেলার নেতৃবৃন্দসহ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্যদের ঢাকায় ডাকা হয়। পরে ২১ জুলাইর মিটিং স্থগিত করে আজ রোববার (২৪ জুলাই) বিকেল ৩টায় ঢাকায় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ডাকা হয়।
দেবীদ্বার তথা কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের দৃষ্টি এখন ঢাকায়। কি হচ্ছে ? কি হবে ? এ আলোচনা এখন কুমিল্লাবাসীর মুখে মুখে। ঘটনার পর থেকে দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে দেবীদ্বার উপজেলায় রাজনীতির ময়দান উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। এ ঘটনায় যে কোন সময় এমপি ও চেয়ারম্যান গ্রুপের মধ্যে বড় ধরনের সংঘাতের আশংকা করছে উপজেলাবাসী।
আওয়ামী লীগ কুমিল্লা (উঃ) জেলা সাধারন সম্পাদক আলহাজ¦ রোশন আলী মাষ্টার জানান, চট্রগ্রাম বিভাগীয় দায়ীত্বপ্রাপ্ত আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি সাহেব ১৬ জুলাই জাতীয় সংসদ ভবনের দ্বিতীয় তলায় পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাবে সৃষ্ট বিরোধ নিষ্পত্তি এবং সম্মেলনের তারিখ পুননির্ধারণ বা আহবায়ক কমিটি গঠন করার বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত নিতেই, ২৪ জুলাই রোববার বিকেল ৩টায় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সভা ডেকেছেন। ওই মিটিং-এ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ্ব ছাড়াও দেবীদ্বার উপজেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটিসহ কুমিল্লা (উঃ) জেলা ও দেবীদ্বার উপজেলার নেতৃবৃন্দরা থাকবেন। আশা করি বৈঠকে একটি সুন্দর সমাধান হবে।

সংবাদ প্রকাশঃ  ২৩-০-২০২২ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email