না’গঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণ ৩ সপ্তাহে চার্জশীট : অভিযুক্ত ৩০ জনের বেশী! : বিদ্যুতের মিটার রিডার গ্রেফতার

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ, এম আর কামাল, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার পশ্চিম তল্লায় মসজিদে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় আগামী ৩ সপ্তাহের মধ্যেই চার্জশীট প্রদান করা হবে। এতে ৩০ জনের বেশী লোকজনকে অভিযুক্ত করা হতে পারে। এ লক্ষ্যেই মামলার তদারক সংস্থা সিআইডি কাজ করে চলেছে। ঘটনায় ডিপিডিসির বহিস্কৃত বিদ্যুতের মিটার রিডার আরিফুর রহমানকে (৩০) গ্রেফতার করেছে। এ নিয়ে এ পর্যন্ত ১০জনকে গ্রেফতারার করা হয়েছে। সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে বিদ্যুতের মিটার রিডারকে গ্র্রেফতারের পরেই সিআইডি তাদের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে করেন নারায়ণগঞ্জ জোনের বিশেষ পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন আহম্মেদ।
তিনি জানান, মসজিদের মূলত বিদ্যুতের স্পার্ক থেকেই গ্যাসের বিস্ফোরণে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিদ্যুতের সংশ্লিষ্টদের গাফিলতির প্রমাণ মিলেছে। মসজিদে যদি মিটার রিডার আরিফুর প্রতি মাসে যেত তাহলে, এমন ঘটনা হত না। কারণ প্রতি মাসে মিটার চেক করলে অবৈধ সংযোগ বা সমস্যা ধরা পড়ত। বিভিন্ন সংস্থার বিভিন্ন সমস্যা কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে। তল্লা মসজিদ বিস্ফারণ মামলায় ইতোমধ্যে ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৩ সপ্তাহ মধ্যে চার্জশীট দেয়া হতে পারে। আরিফুল রহমানকে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হবে।
বিশেষ পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় মসজিদ কমিটির গাফিলতি আছে। প্রয়োজনে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তিতাস ও বিদ্যুতের সংশ্লিষ্টদের গাফিলতি আছে। তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে। তাছাড়া তিতাসের কে ঘুষ চেয়েছিলেন সেই ব্যক্তিকেও চিহ্নিত করার কাজ চলছে। মসজিদ কমিটির গাফলতি নিয়ে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে তাদের মধ্যে কেউ গ্রেফতার হতে পারে। এর আগে মসজিদে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় গ্রেফতার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ৪ কর্মকর্তাসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তারা জামিনে আছেন। এছাড়া মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনার মামলায় গ্রেফতার বিদ্যুতের মিস্ত্রি মোবারক হোসেন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নারায়ণগঞ্জ সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক বাবুল হোসেন জানিয়েছেন, জবানবন্দিতে আসামি মোবারক হোসেন মসজিদ কমিটির সম্মতিতে সে মেইন লাইনের প্যানেল বোর্ড থেকে শুরু করে মসজিদের এসি ও সব লাইনের কাজ করেছেন বলে স্বীকার করেছেন। এছাড়া এ মসজিদের দুইটি বিদ্যুৎ লাইনের একটি অবৈধ সে কথাও মোবারক স্বীকার করেন বলে জানান।
উল্লেক্য গত ৪ সেপ্টেম্বর মসজিদে বিস্ফোরণে ৩৭ জন দগ্ধ হয়। তাদের মধ্যে অন্তত ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও হাসপাতালের আইসিইউতে আশঙ্কাজনক রয়েছেন দুই জন। বিস্ফোরণের ঘটনায় ৫ সেপ্টেম্বর ফতুল্লা থানার এসআই হুমায়ন কবির বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে থানায় মামলা করেন। পরবর্তীতে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়।

সংবাদ প্রকাশঃ  ১২১০২০২০ইং (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like সিটিভি নিউজ@,CTVNEWS24   এখানে ক্লিক করে সিটিভি নিউজের সকল সংবাদ পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুনসিটিভি নিউজ।। See More =আরো বিস্তারিত জানতে লিংকে ক্লিক করুন=   

Print Friendly, PDF & Email