নলছিটির মোল্লারহাট ইউনিয়ন নির্বাচনে ত্যাগী ও নির্যাতিত নেতা সোহেলা রানা দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ ।।   নিজেস্ব প্রতিবেদক: ঝালকাঠি আওয়ামীলীগের ৩২টি ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি/ সম্পাদকদের মধ্যে সর্বকনিষ্ট নলছিটি উপজেলার মোল্লারহাট ইউনিয়ন কমিটির সাধারন সম্পাদক, ত্যাগী ও নির্যাতিত নেতা মোঃ সোহেলা রানা (৩০) আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী। তৃনমূল পর্যায়ে দলের জন্য বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময়ে বহুমামলা-হামলা, নির্যাতন, ঘরবাড়ী ভাংচুর-জ্বালিয়ে দেয়া ও আপন বড়ভাই কে গুম করার পরেও তিনি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের পতাকা সম্মুন্ন রাখায় স্থানীয় নেতাকর্মীরাও তার মনোনয়নের বিষয় একাট্টা অবস্থান নিয়েছে। স্বাধীনতা পরবর্তী প্রায় এক যুগ সভাপতির দায়িত্বে থাকা তার মুক্তিযোদ্ধা ও শিক্ষক পিতা একে নুরুল ইসলাম বিগত ২০বছরেও নিখোজ সন্তানের সন্ধান না পাওয়ার কষ্ট বুকে নিয়ে চলতি বছর জানুয়ারীতে মৃত্যু বরন করেন। তিনি দলের কোন সুযোগ সুবিধা না নেয়ায় তার যোগ্যপুত্র মোঃ সোহেলা রানা মোল্লারহাট ইউপি নির্বাচনে দলীয় মূল্যায়ন হিসাবে মনোনয়ন পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছে। দলের উর্ধে এলাকায় সাধারন মানুষের যেকোন সমস্যা ও বিপদে আন্তরিক সহযোগীতার হাত বাড়ানো মোঃ সোহেলা রানা নিজ দল ও এলাকাবাসীর কাছেও ব্যাপক জনপ্রিয় বলে জানাগেছে।
এ বিষয়ে মোল্লারহাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ সোহেলা রানার সাথে আলাপকালে তিনি জানান, মুক্তিযোদ্ধা ও শিক্ষক পিতার হাত ধরে ছাত্রলীগের রাজনীতি এসে কিশোর বয়স থেকে অনেক অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করেছি। বিগত ২০০১ সালের বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার আমার পিতাকে আওয়ামীলীগের আদর্শচ্যুত করতে না পেরে তৎকালীন এমপি এলিন ভূট্টোর নির্দেশে আমাদের উপর মধ্যযুগীয় হামলা-মামলা-নির্যাতন চালানো হয়। এমপির নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা আমারদের বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয় এবং সেই সময় ঘরে থাকা তার আপন বড় ভাই মোঃ সাইফুল ইসলাম সোহাগকে মারধর করে গুম করে ২০বছর অতিক্রম করেও যার সন্ধান এখোনও পাওয়া যায়নি। তবুও বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধু কন্যার আদর্শ থেকে আমি কনোদিন পিছু হটিনি এবং এই অঞ্চলের রাজনৈতিক অভিভাবক আমাদের প্রানপ্রিয় সংসদ সদস্য আলহাজ আমির হোসেন আমুর নির্দেশ অমান্য করিনি। তাই আমার নেতা এবার আমাকে মনোনয়ন বঞ্চিতকরবেন না বলে আমার বিশ্বাস।
তিনি দলীয় মনোনয়ন পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে মোল্লারহাট ইউনিয়নকে খুনী সন্ত্রাসী ও মাদক মুক্ত আধুনকি ইউনিয়ন গঠন করবেন বলে আশাবাদব্যক্ত করেন।  সংবাদ প্রকাশঃ  ০৭১০২০২০ইং (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like সিটিভি নিউজ@,CTVNEWS24   এখানে ক্লিক করে সিটিভি নিউজের সকল সংবাদ পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুনসিটিভি নিউজ।। See More =আরো বিস্তারিত জানতে লিংকে ক্লিক করুন=   

Print Friendly, PDF & Email