দিনাজপুর ফুলবাড়ীতে এক ভ্যান চালককের গলা কাটা মৃতদেহ উদ্ধার

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ।।    দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি নয়ন  সংবাদদাতা জানান == বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের বলিভদ্রপুর মাঠের ধান ক্ষেতে এই হত্যাকান্ডর ঘটনা ঘটে।

আজ সকালে বলিভদ্রপুর ধান ক্ষেত থেকে রিক্সা-ভ্যানচালক হাছেন বাবুর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত ভ্যান চালক হাছেন বাবু (৩২), উপজেলার বেতদিঘী ইউনিয়নের সৈয়দপুর দক্ষিপাড়া গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে।

ফুলবাড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাছান মাহমুদ বলেন বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় দুবৃত্তরা ভ্যান চালক হাছেন বাবুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে। প্রাথমিক তদন্তে নিহত হাছেন বাবুর শরিরে একাধিক ক্ষতের চিহ্ন পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান।

এদিকে ভ্যানচালক হাছেন বাবুকে হত্যার ঘটনায় শোকের ছায়া পড়েছে হাছেন বাবুর গ্রাম সৈয়দপুরে। পরিবারের একমাত্র উপার্জন সক্ষম ব্যাক্তি হাছেন বাবুর হত্যার ঘটনায় জ্ঞান হারিয়েছেন হাছেন বাবুর বৃদ্ধপিতা আব্দুর রশিদ (৭৪)। হাছেন বাবুর বৃদ্ধ মা হাছনা বেগমের আহাযারীতে ভারী হয়ে উঠেছে সেখানের পরিবেশ।

হাছেন বাবুর বোন রশিদা বেগম বলেন, বৃহস্পতিবার বিকালে হাছেন বাবু ভ্যান নিয়ে বের হওয়ার পর, আর বাড়ী ফিরে আসেনি। পরের দিন শুক্রবার সকালে তারা লোকমুখে খবর পেয়েছেন হাছেন বাবুকে কে বা কাহারা গলা কেটে হত্যা করেছে।

হাছেন বাবুর চাচা রফিকুল ইসলাম বলেন তার বড় ভাই আব্দুর রশিদের দুই ছেলে এক মেয়ের মধ্যে হাছেন বাবু মেজো। হাছেন বাবুর বড় ভাই ইয়ানুর গত বছর সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে, মেয়েটি স্বামীর ঘর ছেড়ে এখন বাবার বাড়ীতে বসবাস করছে। সংসারের একমাত্র উপার্জন সক্ষম ব্যাক্তি ছিল হাছেন বাবু।
ফুলবাড়ী থানার ওসি ফখরুল ইসলাম বলেন শুক্রবার সকালে স্থানীয় বাসীন্দাদের নিকট থেকে খবর পেয়ে, বলিভদ্রপুর ধানক্ষেত থেকে হাছেন বাবু (৩২) নামে এক ভ্যান চালকের গলা কাটা মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

সংবাদ প্রকাশঃ  ০৯১০২০২০ইং (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like সিটিভি নিউজ@,CTVNEWS24   এখানে ক্লিক করে সিটিভি নিউজের সকল সংবাদ পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুনসিটিভি নিউজ।। See More =আরো বিস্তারিত জানতে লিংকে ক্লিক করুন=   

Print Friendly, PDF & Email