কুসিক নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতিতে প্রাধান্য পাচ্ছেন নারী ও তরুণ ভোটাররা

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন
সিটিভি নিউজ।।    নেকবর হোসেন   কুমিল্লা প্রতিনিধি==========
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচরণায় আর মাত্র হাতে আছে তিন দিন। শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত রয়েছেন প্রার্থীরা। অবিরাম ছুটে চলছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। নানা কৌশলে ভোটারদের মনজয়ের চেষ্টা চলছে তাদের। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতিও। শেষমুহূর্তে প্রার্থীদের এসব প্রতিশ্রুতিতে প্রাধান্য পাচ্ছেন নারী ও তরুণ ভোটারা। শুধু মেয়র প্রার্থীরা নয়, নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরাও শেষ মুহূর্তে ব্যস্ত রয়েছেন প্রচারণায়। ক্ষণে ক্ষণে কড়া নাড়ছেন ভোটারের দরজায়। সবমিলিয়ে কুমিল্লা সিটি নির্বাচন ঘিরে চলছে জমজমাট প্রচারণা।
বরাবরের মতো শনিবার ও সকাল থেকে প্রচারণায় নেমে দুই  মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু এবং আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত।প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতিতে প্রাধান্য পাচ্ছেন নারী ও তরুণ ভোটাররা শনিবার  ১১জুন সকাল নগরীর সাড়ে ১০টায় ৮নং ওয়ার্ডের রাণীর বাজার শাহজাহান রেষ্ট হাউজ হতে গণসংযোগ করেন ও দুপুর ১টায় ৭নংওয়ার্ডের গোবিন্দপুর  এলাকায় গণসংযোগ করেন।তারপর দুপুর ২টায় খলিফাবাড়ি মসজিদের পাশে উঠান বৈঠক করেন। বিকাল ৪টায় আবার
৭নং ওয়ার্ডের আশোকতলা এলাকায় গণসংযোগ করেন।
 এসময় মনিরুল হক সাক্কু বলেন, প্রচারণা শুরুর পর থেকেই আমি প্রত্যেক ভোটারের কাছে যাওয়ার চেষ্টা করছি। ভোটাররাও কাছে পেয়ে আমাকে সাদরে গ্রহণ করে নিচ্ছেন। বিগত দিনে আমি দুই মেয়াদে মেয়র ছিলাম। সুখে-দুখে তাদের পাশে থেকেছি। আমি সাধ্যমতো উন্নয়ন করেছি; কিছু ব্যর্থতাও আছে।
তরুণ ভোটারদের উদ্দেশ্যে মনিরুল হক সাক্কু বলেন, বিগত দিনে আমি তরুণদের চাহিদার বিষয়টি মাথায় রেখে বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছি। নিউ মার্কেটে একটি আইটি জোন করে দিয়েছি তরুণদের জন্য। সেখানে তরুণরা বিভিন্ন কম্পিউটার সামগ্রী বেচা কেনার মাধ্যমে উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে। নির্বাচিত হলে তরুণদের জন্য আরো বেশি কাজ করবো।প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতিতে প্রাধান্য পাচ্ছেন নারী ও তরুণ ভোটাররানারী ভোটারদের বিষয় তিনি বলেন, কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে সবসময়ই নারীদের ভোটেই মেয়র পদে জয় পরাজয়ের সম্ভাবনা দেখা দেয়। নারীরাই বেশি ভোট কেন্দ্রে দিয়ে আগে আগে ভোট দেন। তাদের মাথায় রাজনৈতিক বিষয়টি থাকে না। ফলে তাদের ভোটটি নিরপেক্ষ হয়। পুনরায় নির্বাচিত নারীদের সমস্যা আগে সমাধান করবো।
এদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত   শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় নগরীর ১১ নম্বর ওয়ার্ডের রানীর দিঘীর পাড় এলাকায় গণসংযোগের মধ্যদিয়ে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণায় নামেন। এদিন তিনি নগরীর সকাল ১০টায় চৌয়ারা ফ্যাক্টরী,১নং ওয়ার্ডের ভাটাপাড়া ও সকাল ১১ টায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রাঙ্গণ এলাকায় গণসংযোগ,পথসভা এবং উঠান বৈঠকে বক্তব্য রাখেন।
আরফানুল হক রিফাত বলেন, কুমিল্লার নাগরিকরা বর্তমানে নানা সুবিধাবঞ্চিত রয়েছে। তাদের উন্নয়ে যে পরিমাণ বরাদ্দ এসেছে; তার ছিটেফোটাও নাগরিকদের উন্নয়নে ব্যয় করা হয়নি। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে নাগরিকদের চাহিদা অনুযায়ী উন্নয়ন করে যাবো।
কুমিল্লা সিটির ভোটে নারী ভোটারদের একটি প্রচ্ছন্ন প্রভাব থাকে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একজন নারী। তিনি সবসময় নারী উন্নয়নে কাজ করে গেছেন, সেটা প্রমাণিত। আমাকে নৌকা মার্কায় ভোট দিলে সারা দেশের মতো কুমিল্লায়ও নারী উন্নয়ন বজায় থাকবে।

তিনি বলেন, নারীদের কল্যাণে আমি কুমিল্লা নগরীতে ফ্রি এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের ব্যবস্থা করবো। যে কোনো অসুখ-বিসুখে তারা যেনো হাতের কাছেই চিকিৎসা ও এ্যাম্বুলেন্স সেবা পায়, সেই ব্যবস্থা করবো।প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতিতে প্রাধান্য পাচ্ছেন নারী ও তরুণ  ভোটারদের উদ্দশ্যে রিফাত বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশে তরুণরাই আগামীর ভবিষ্যৎ। সরকার তরুণদের উন্নয়নে নানা প্রকল্পত গ্রহণ করেছেন। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে কুমিল্লাতেও নানা উদ্যোগ গ্রহণ করে তরুণদের কর্মসংস্থান ও উন্নত জীবন-যাপনের ব্যবস্থা করবো।সংবাদ প্রকাশঃ  ১১-০-২০২২ইং সিটিভি নিউজ এর  (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে/লিংকে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email