কুমিল্লার দেবিদ্বারে স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করেছে স্বামী

সিটিভি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

সিটিভি নিউজ।।    এ,বি,এম আতিকুর রহমান বাশার  সংবাদদাতা জানান === ঃ দেবীদ্বারে এক গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনার অভিযোগে শনিবার দিবাগত রাতে পুলিশ মাদকাসক্ত স্বামী মোঃ ফারুক আহাম্মদ(৩০)কে গ্রেফতার করে রোববার দুপুরে কুমিল্লা কোর্ট হাজতে চালান করেছে। আহত গৃহবধূকে স্থানীয়রা ওই রাতেই উদ্ধার করে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন।
গ্রেফতার হওয়া মাদকাসক্ত ফারুক উপজেলার বারুর গ্রামের আলী হোসেন মাস্টার বাড়ির নুরুল ইসলামের পুত্র। ওই ঘটনায় আহত গৃহবধূর ভাই মেহেদী হাসান বাদী হয়ে মাদকাসক্ত ভগ্নিপতি মোঃ ফারুক আহাম্মদ, বোনের শ^শুর নুরুল আমীন এবং শাশুড়ী দেলোয়ারা বেগমকে আসামী করে দেবীদ্বার থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মাামলা করেছেন।
স্থানীয়রা জানান, গত বছরের ১১নভেম্বর দেবীদ্বার উপজেলার বারুর গ্রামের আলী হোসেন মাস্টার বাড়ির নুরুল ইসলামের ছেলে মোঃ ফারুক(৩০)’র সাথে একই উপজেলার পৌরএলাকার বারেরা গ্রামের আমানতের বাড়ির আবুল হাসেমের মেয়ে ফারহানা আক্তার(২২)’র সাথে বিয়ে হয়। ফারুক তখন ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানীতে কর্মরত ছিল। বিয়ের ৩মাসের মধ্যেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে নিছক ঘটনায় পারিবারিক বিরোধ চলতে থাকে। এক পর্যায়ে মাদকাসক্ত স্বামীর মারধরে অসহ্য হয়ে ফারহানা আক্তার পিতার বাড়িতে চলে আসেন।
গত শনিবার বরপক্ষ বারুর গ্রামের শহীদ মেম্বার, ময়নাল হোসেন, জসীম উদ্দিন সহ কণের পক্ষের গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে কণের বাড়িতে এক সালিস বসে। সালিসে কণের উপর শ^শুর বাড়ির লোকজন আর কোন অত্যাচার করবেনা, মাদকাসক্ত স্বামীও মার ধর করবেনা ওই শর্তে উভয় পক্ষের সমঝোতায় শনিবার বিকেলেই স্বামী ফারুক তার স্ত্রী ফারহানাকে নিয়ে বাড়ি যায়।
মামলার বাদী ফারহানার ভাই মেহেদী হাসান বলেন, রাত ৮টায় তার বোনজামাই ফারুক ফোনে জানায়, একদল চোর চুরি করতে এসে তার বোনকে হাত- পা বেঁধে গলায় ছুরি ঠেকিয়ে গলা ও কানের অলংকার ছিনিয়ে নেয়। সংবাদ পেয়ে কণের বাড়ির লোকজন ফারহানাকে উদ্ধার করে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।
মেহেদী হাসান’র বোন ফারহানা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জানান, সন্ধ্যায় তার স্বামীর সাথে কথাকাটাকাটি হয়। রাত ৮টায় হঠাৎ তার স্বামী পেছন দিক থেকে লাঠি আঘাত করলে সে মেঝেতে লুটে পড়ে। এর পরই তার মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে ফলকাটার ছুরি দিয়ে গলায় পোঁচাতে থাকে, এসময় আরো ২/৩জন তার হাত পা চেঁপে ধরে, সে দু’হাতে বাঁচার চেষ্টা করলে দু’হাতের কব্জী কেটে যায়। দস্তা ধস্তি ও তার সূর চীৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে এসে উদ্ধার করে হাসপাতাল ভর্তি করান।
দেীবদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জহিরুল আনোয়ার জানান, রাতেই অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে ফোর্স পাঠিয়ে অভিযাান চালাই এবং প্রধান অভিযুক্ত ফারুককে গ্রেফতার করে আজ কুমিল্লা কোর্ট হাজতে চালান করা হয়েছে। ওই ঘটনায় মামলা হয়েছে। তদন্ত চলছে।

সংবাদ প্রকাশঃ  ২৫১০২০২০ইং (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like সিটিভি নিউজ@,CTVNEWS24   এখানে ক্লিক করে সিটিভি নিউজের সকল সংবাদ পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুনসিটিভি নিউজ।। See More =আরো বিস্তারিত জানতে লিংকে ক্লিক করুন=   

Print Friendly, PDF & Email