অবৈধভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালানোর প্রতিবাদে কুমিল্লা জেলা ট্রাক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন এর  সংবাদ সম্মেলন

সিটিভি নিউজ।।   সৌরভ মাহমুদ হারুন      নিজস্ব প্রতিবেদক।।
কুমিল্লা জেলা ট্রাক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন -২০৪৪ এর বহিস্কৃত সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোশারফ হোসেন – আবুল কালাম -ওবায়দুল গং কর্তৃক বেআইনীভাবে নিমশারে প্রধান কার্যালয়ের ব্যানার টাঙ্গিয়ে কার্যক্রম চালানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, ১৯৯৯ সালে রেজিস্ট্রার অব ট্রেড ইউনিয়ন চট্টগ্রাম কর্তৃক প্রধান কার্যালয় ফৌজধারী কোর্ট রোড এই ঠিকানায় রেজিষ্ট্রেশন প্রাপ্ত হয।যার নং ২০৪৪।শুরু থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত সুন্দর ভাবে সংগঠন টি চালু হয়ে আসলেও এর পর থেকে ছিদ্দিকুর রহমান সভাপতি ও সৈয়দ মোশারফ হোসেন সাধারণ সম্পাদক এই কমিটি ৮ বছর দায়িত্ব পালন কালে শ্রম দপ্তরে রিটার্ন না দেয়া,জমা খরচের হিসাবে গড়মিলসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠে তাদের বিরুদ্ধে, ২০১২ সালে মোশারফ হোসেন অসুস্থ হলে কামাল হোসেন কে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। পরে নির্বাচনে সিদ্দিকুর রহমান কে সভাপতি ও কামাল হোসেন কে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।এ কমিটির বিরুদ্ধে মোশাররফ হোসেন শ্রম দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দে,শ্রম দপ্তর তদন্ত পূর্বক ছিদ্দিক – কামাল কমিটিকে বৈধ ঘোষনা করেন। এর পর থেকেই মোশারফ হোসেন গং রা নথিপত্র বুঝিয়ে না দিয়ে অন্যত্র সরিয়ে ফেলে।এ বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় জিডি করা হয়েছে। পরবর্তীতে চুরির দায়ে মোশাররফ হোসেন কে বহিষ্কার করা হয়। এখানে সুবিধা করতে না পেরে নিমসার শাখার সম্পাদক আবুল কালাম আযাদ নির্বাহী সদস্য ওবায়দুল হক কে ব্যবহার করে বিভিন্ন অনিয়ম করে আসছে। এসব অনিয়মের কারণে মোশারফ আলম রাকিব মঞ্জুরকে বহিষ্কার করে বর্তমান কমিটি। বহিষ্কারের কোন জবাব না দিয়ে তারা নিজেরা কমিটির কাছে আবেদন করা অব্যাহতি নেয়।এসময় তার অনুগত দের  নিয়ে নিমসার বাজারে অবৈধভাবে প্রধান কার্যালয় স্থাপন করে শৃঙ্খলা সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে।
এ বিষয়ে শ্রম অধিদপ্তর কুমিল্লা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জানান, সৈয়দ মোশারফ হোসেন কর্তৃক অবৈধ পন্থায় ও বেআইনিভাবে স্থাপিত কুমিল্লা জেলা ট্রাক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ২০৪৪ এর কার্যালয় ও  সাইনবোর্ড অপসারণসহ অবৈধ কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে এবং বুড়িচং থানাকে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত আবুল কালাম আজাদ জানান,আমাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।আমাদের কমিটিই বৈধ কমিটি। বর্তমান কমিটি সঠিকভাবে হিসাব নিকাশ দিতে পারবেনা বলেই আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনছে।আমরা শ্রমিকদের নায্য আদায়ে কাজ করছি।সংবাদ প্রকাশঃ  ১৩-১০-২০২১ইং । (সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে দয়া করে ফেসবুকে লাইক বা শেয়ার করুন) (If you think the news is important, please share it on Facebook or the like  See More =আরো বিস্তারিত জানতে ছবিতে/লিংকে ক্লিক করুন=  

Print Friendly, PDF & Email